৭টি সবচেয়ে আশ্চর্যজনক দাবার রেকর্ড

৭টি সবচেয়ে আশ্চর্যজনক দাবার রেকর্ড

SamCopeland
NM SamCopeland
৯ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১২:০০ AM |
৮৯ | টুকিটাকি জিনিস নিয়ে মজা

রেকর্ড আমাদের মহত্ত্বের জন্য সংগ্রাম করার জন্য সকলকে অনুপ্রাণিত করে. দাবার দীর্ঘ উত্তরাধিকার এমন সব রেকর্ডের জন্ম দিয়েছে যেসব কয়েক দশক ধরে টিকে আছে এবং কিছু কিছু শত বছর ধরেও থেকে যেতে পারে।

এখানে ইতিহাসের সবচেয়ে আকর্ষণীয় ৭টি দাবা রেকর্ডসমূহ দেওয়া হল।

দীর্ঘতম বিজয়ী ধারা: বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ববি ফিশার - ২০ (বা ১৯?)টি গেম

Bobby Fischer, World Chess Champion

ববি ফিশার, মাস্টার দাবায় সর্বাধিক ধারাবাহিকভাবে জয়ী থাকার বিশ্ব রেকর্ডের ধারক | ছবি: উইকিপিডিয়া

শিরোপার দৌড়ে বরিস স্পাস্কির সাথে চূড়ান্ত ম্যাচে ববি ফিশার প্রতিযোগিতায় সেরাদের বিরুদ্ধে অসাধারণ ২০টি গেমে জয়লাভ করেন। তিনি ১৯৭০ সালে পাল্মা ডে মালোর্কা ইন্টারজোনালে তার দৌড় শুরু করেন যেখানে টুর্নামেন্ট শেষ করার জন্য তিনি একটানা সাতটি গেম জিতে নেন। যেহেতু অস্কার পিনো তার খেলা স্বেচ্ছায় ত্যাগ করেন, কিছু দাবা ইতিহাসবিদ এই গেমটি হিসাবে না আনতে পছন্দ করেন।

১৯৭১ সালের অংশগ্রহণকারীদের ম্যাচে মার্ক টায়মানভ এবং বেন্ট লারসেনকে ফিশার নিখুঁত ৬-০ স্কোরে হারিয়েছিলেন।

শুরুতে তিগরান পেট্রোসিয়ানের বিপক্ষে জয়ের পরের ম্যাচে হারার কারণে জয়ের ধারা শেষ হয়ে যায়।
পেট্রোসিয়ান এবং বরিস স্পাসস্কিকে ভালোভাবে হারিয়েই ফিশার বিশ্ব দাবা চ্যাম্পিয়ন হতে পেরেছিলেন।


সম্মানিত উল্লেখ:

  • বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ববি ফিশার - ১৯৬৩/৪ ইউএস চ্যাম্পিয়নশিপে ১১/১১
  • জিএম ফ্যাবিয়ান কারুয়ানা - ২০১৪ সালের সিঙ্কফিল্ড কাপে সাতটি জয়

দীর্ঘতম অপরাজিত জয়ের ধারা: বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন মিখাইল তাল – ৯৫টি গেম

Mikhail Tal, World Chess Champion

মিখাইল তাল, সবচেয়ে বেশি ধারাবাহিকভাবে কোন পরাজয় ছাড়া মাস্টার গেমের বিশ্ব-রেকর্ডের অধিকারী | ছবি: উইকিপিডিয়া।

মিখাইল তাল তাঁর সৃজনশীল আক্রমণকারী স্টাইলের জন্য বিখ্যাত ছিলেন, যা পূর্ণ প্রকাশ পায় ১৯৬০ সালের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে মিখাইল বটভিনিকের বিপক্ষে অনুষ্ঠিত ম্যাচে। এই ম্যাচে জিততে তিনি ২৩ বছর বয়সে সর্বকনিষ্ঠতম বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন: আরো একটি রেকর্ড যা টিকে ছিল ১৯৮৫ সালে ২২ বছর বয়সে গ্যারি কাসপারভ অ্যান্টোলি কারোপভকে পরাজিত করা পর্যন্ত।

স্বাস্থ্যগত সমস্যাগুলির কারণে তালের ক্যারিয়ার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল এবং তার অধারাবাহিক ফর্মের কারণে অনেকে হয়তো তার অবিশ্বাস্যকর পরের বছরগুলোকে উপেক্ষা করতে পারে। ২৩ শে অক্টোবর, ১৯৭৩ এবং ১৬ই অক্টোবর, ১৯৭৪ সালের মাঝামাঝি, তিনি কোন পরাজয় ছাড়াই পরপর ৯৫ টি গেম খেলেন, এটি এমন একটি অসাধারণ কৃতিত্ব যে কোন খেলোয়াড়ই এর সমানের কাছাকাছি আসতে পারেনি।

সম্মানিত উল্লেখ:

  • মিখাইল তাল (আবার!) - জুলাই ১৯৭২ থেকে এপ্রিল ১৯৭৩ পর্যন্ত ৮৫টি গেম
  • বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হোসে রাউল ক্যাপাব্লাঙ্কা – ফেব্রুয়ারি ১০, ১৯১৬ থেকে মার্চ ২১, ১৯২৪ পর্যন্ত ৬৩টি গেম

দীর্ঘতম-রাজত্বকারী বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন: ইমানুয়েল লাস্কার - ২৭ বছর

Emanuel Lasker, World Chess Champion

ইমানুয়েল লাস্কার, দীর্ঘতম-রাজত্বকারী বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন | ছবি: উইকিপিডিয়া।

ইমানুয়েল লাস্কার দ্বিতীয় বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়ে উঠেন যখন তিনি ১৮৯৪ সালে উইলহেম স্টেনিত্‌যকে পরাজিত করেন। তিনি ১৯২১ সালে হোসে রাউল ক্যাপাব্লাঙ্কা কর্তৃক পরাজিত হওয়া পর্যন্ত তাঁর শিরোপা ধরে রাখেন। তিনি ১৯৩০-এর দশকে এলিট টুর্নামেন্টে খেলেন ও ধারাবাহিকতা চালিয়ে যান। এটি প্রায়ই লক্ষ করা যায় যে লাস্কারের রাজত্ব বর্ধিত করা হয়েছিল কারণ বিশ্ব যুদ্ধ I এর হস্তক্ষেপে রুবিনস্টাইন এবং ক্যাপাব্লাঙ্কার সাথে নির্ধারিত ম্যাচগুলি স্থগিত করা হয়েছিল। এমনকি ওসব অবিচ্ছিন্ন বছরগুলি হিসাবে না এনেই, লাস্কারের রাজত্ব অন্য যেকোনো চ্যাম্পিয়নের চেয়ে দীর্ঘতর থাকবে।

সম্মানিত উল্লেখ:

  • বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন গ্যারি কাসপারভ - ১৯৮৫ থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত ১৫ বছর
  • বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন মিখাইল বটভিনিক - ১৯৪৮ থেকে ১৯৬৩ সাল পর্যন্ত ১৩টি অধারাবাহিক বছর

সর্বোচ্চ এলো রেকর্ড: বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ম্যাগনাস কার্লসেন - ২৮৮২

Magnus Carlsen, World Chess Champion

বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ম্যাগনাস কার্লসেন, সর্বকালের সেরা প্লেয়ার | ছবি: মারিয়া এমিলিয়ানোভা।

ম্যাগনাস কার্লসেন ২০১৪ সালে মে মাসের ফিদে তালিকার এই মার্কে পৌঁছান। অনানুষ্ঠানিকভাবে, তিনি লাইভ রেটিং তালিকাতে ২৮৮৯ এর এমন উচ্চতর মার্কে পৌঁছেছিলেন। কেউ কেউ তর্ক করেন যে রেটিংস্ফীতি এই রেকর্ডসমূহকে অর্থহীন করে দেয়, কিন্তু Chess.com's analysis shows that chess skill is actually improving over time.

লেখার সময় পর্যন্ত, শুধুমাত্র ১২জন খেলোয়াড় ২৮০০ রেটিং এ পৌঁছেছেন. কার্লসেন হলেন ২৯০০ রেটিং এর কাছে যাওয়া একমাত্র খেলোয়াড়।

সম্মানিত উল্লেখ:

  • বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন গ্যারি কাসপারভ - জুলাই ১৯৯৯ এ ২৮৫১
  • জিএম ফ্যাবিয়ানো কারুয়ানা - অক্টোবর ২০১৪ এ ২৮৪৪

গ্র্যান্ড মাস্টার হওয়ার জন্য সর্বকনিষ্ঠ খেলোয়াড়: জিএম সার্গেই কারজাকিন - ১২ বছর, সাত মাস

Sergey Karjakin, Chess Prodigy

জিএম সার্গেই কারজাকিন, সর্বকালের সর্বকনিষ্ঠ গ্র্যান্ডমাস্টার | ছবি: মারিয়া এমিলিয়ানোভা।

প্রকাশনার সময় কারজাকিন ১২ বছর বয়সে গ্র্যান্ড মাস্টার খেতাব অর্জন করার একমাত্র খেলোয়াড়। কারজাকিন মাত্র ১২ তে পদার্পণের পরপরই প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়নশিপ ম্যাচে খেলার অভিজ্ঞতা অর্জন করেন, তিনি রুসলান পনোমারিওভের দ্বিতীয় হিসাবে ভ্যাসিলি ইভানচুকের সঙ্গে তার ফিদে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ ম্যাচে থাকেন।

২০১২ সালে, ম্যাগনাস কার্লসেনকে চ্যালেঞ্জ করে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে কারজাকিন নিজের সুযোগ পেয়েছিলেন। মাচটি শেষ পর্যন্ত কার্লসেনের পক্ষে দ্রুত টাইব্রেকের মাধ্যমে ১২টি ক্লাসিক্যাল গেমে ৬-৬ ড্র করার পর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়, প্রতিটি খেলোয়াড়ই একটি গেম জিতে নেয়।

সম্মানিত উল্লেখ:

  • বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ববি ফিশার - ১৯৫৮ সালে ১৫ বছর, ৬ মাস, ১ দিন
  • জিএম জুডিত পলগার - ১৯৯১ সালে ১৫ বছর, ৪ মাস, ২৮ দিন

সর্বাধিক যুগপৎ গেম: জিএম এহসান ঘায়েম মাঘামি – ৬০৪টি গেম

Ehsan Ghaem Maghami, Simultaneuos Chess

জিএম এহসান ঘায়েম মাঘামি, যুগপৎ দাবার জন্য বিশ্ব রেকর্ডের অধিকারী | ছবি: উইকিপিডিয়া।

একটি যুগপৎ প্রদর্শনী হল একই সময়ে একাধিক প্রতিযোগীর বিরুদ্ধে গেমের একটি সেট। সাধারণত প্রতিপক্ষরা একটি সারিতে বা বৃত্তে বসে থাকেন এবং মাস্টার খেলোয়াড়দের ঘুরাতে থাকেন, পরেরটাতে যাওয়ার আগে প্রতিটি প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে চাল তৈরি করেন।

এহসান ঘায়েম মাঘামি, নয় বারের ইরানী চ্যাম্পিয়ন, একসঙ্গে ৬০৪ জনেরও বেশি প্রতিপক্ষের সাথে খেলার মাধ্যমে একসাথে একাধিক প্রতিপক্ষের সাথে খেলার বিশ্ব রেকর্ডের দাবি করেন। ইরানের তেহরানে একটি যুগপৎ প্রদর্শনীতে তিনি ৫৮০টি গেম জিতে নেন, মাত্র ১৬টি গেম ড্র করেন এবং আটটিতে পরাজিত হন। প্রদর্শনীটি শহীদ বেহেস্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রীড়া স্টেডিয়ামে ২০১১ সালের ফেব্রুয়ারি ৮-৯তারিখে অনুষ্ঠিত হয়।

সম্মানিত উল্লেখ:

  • সুসান পলগার - ২০০৫ সালে ৩২৬জন প্রতিপক্ষ, ৩০৯টি জয়, ১৪টি ড্র, ৩টি হার
  • হোসে রাউল ক্যাপাব্লাঙ্কা - ১৯২২ সালে ১০৩জন প্রতিপক্ষ, ১০২টি জয়, ১টি ড্র

সর্বাধিক যুগপৎ চোখ-বাঁধা অবস্থাযুক্ত গেম: জিএম টিমুর গারিয়েভ – ৪৮টি গেম

Timur Gareyev, Blindfold Chess

টিমুর গারিয়েভ, চোখ-বাঁধা অবস্থাযুক্ত দাবার ক্ষেত্রে বিশ্বরেকর্ডের অধিকারী | ছবি: মাইক ক্লেইন।

দাবার অন্যতম উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য হল চোখ-বাঁধা অবস্থাযুক্ত খেলা হয়। একটি চোখ-বাঁধা অবস্থাযুক্ত খেলায়, একজন খেলোয়াড়ের বোর্ডের দিকে তাকানোর অনুমতি থাকে না। পুরো অবস্থা খেলোয়াড়দের মাথায় রাখা লাগে যখন চালসমূহ দাবার সঙ্কেত দ্বারা পরিচালিত হয়। একটি যুগপৎ চোখ-বাঁধা অবস্থাযুক্ত প্রদর্শনীতে, প্রদর্শনী প্রদায়ককে একি সময়ে সমস্ত অবস্থানগুলি স্মরণে রাখতে হয়, যা দাবায় দক্ষতা এবং একাগ্রতার একটি বিরাট বৈশিষ্ট্য।

টিমুর গারিয়েভ ২০১৩ সালের ৩-৪ ডিসেম্বরে এই ফর্ম্যাটের জন্য একটি নতুন বিশ্ব রেকর্ড গড়েন, যখন তিনি একই সময়ে ৪৮জন প্রতিদ্বন্দ্বীর সাথে খেলেন। তিনি ৩৫টিতে জয়ী হন, সাতটিতে ড্র এবং ছয়টিতে হেরে যান। Chess.com এর রিপোর্টের সাথে বিশ্ব রেকর্ডের প্রচেষ্টার অভিজ্ঞতাটি পুনরায় উপভোগ করুন.

সম্মানিত উল্লেখ:

  • এফএম মার্ক ল্যাং - ২০১১ সালে ৪৬জন প্রতিপক্ষ
  • জিএম মিগুয়েল নাজদর্ফ - ১৯৪৭ সালে ৪৫জন প্রতিপক্ষের সাথে গেম

আপনার নিজস্ব দাবা রেকর্ড স্থাপন শুরু করার জন্য অনুপ্রাণিত? Chess.com এ একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করুন এবং আজই দাবা শেখা শুরু করুন!